ঢাকা,  সোমবার
২২ জুলাই ২০২৪

Advertisement
Advertisement

মরক্কো নয়, ১৬ বছর বয়সী ইয়ামাল স্পেনকেই বেছে নিলেন

প্রকাশিত: ১৬:০১, ২ সেপ্টেম্বর ২০২৩

মরক্কো নয়, ১৬ বছর বয়সী ইয়ামাল স্পেনকেই বেছে নিলেন

ছবিঃ সংগৃহীত

স্পেনের হয়েই খেলবেন লামিনে ইয়ামাল। ১৬ বছর বয়সী এ ফুটবলারকে দলে চেয়েছিল মরক্কো। কিন্তু আটলাস লায়ন্সদের এই খেলোয়াড় পাওয়ার আশা পূরণ হয়নি। শেষ পর্যন্ত ১৬ বছরের এই কিশোর বেছে নিয়েছে স্পেনকে।
 
গতকাল ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইপর্বের জন্য দল ঘোষণা করেছেন স্প্যানিশ কোচ লুইস দি লা ফুয়েন্তে। ঘোষিত দলে ফুয়েন্তে রেখেছেন ইয়ামালকে।
 
বাবা মরোক্ক এর হলেও ইয়ামালের জন্ম স্পেনেই। ২০০৭ সালের ১৩ জুলাই কাতালুনিয়ান শহর মাতারোয় জন্ম এই খেলোয়াড় এর। ইয়ামালের বেড়ে ওঠাটাও স্পেনেই। ২০১৪ সালে মাত্র সাত বছর বয়সে ফুটবল পায়ে যাত্রা শুরু করেন ইয়ামাল। বার্সার বয়সভিত্তিক দলের সঙ্গে শুরু করেন অনুশীলন। তবে বাবা মরোক্কান হওয়ায় ইয়ামালকে দলে চেয়েছিল ওই দেশের ফেডারেশন। ইয়ামালও সেই ডাকে সাড়া দিতে পারেন, এমন গুঞ্জনও ছিল।
 
স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম স্পোর্ত জানিয়েছিল, স্পেন–মরক্কো দুই দেশেরই কোচের সঙ্গে কথা হয়েছে ইয়ামালের। মরক্কোর কোচ ওয়ালিদ রেগরাগুই ইয়ামালকে দলে পাওয়ার আশা নিয়ে বলেছিলেন, ‘ওর বয়স সবে ১৬ বছর হলো। ওকে একটা সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এটা এত সহজ নয়। ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি ও আমি ওকে পেতে কাজ করছি। তবে এটা ওর নিজের সিদ্ধান্ত। আমরা দেখা করেছি, আলোচনা হয়েছে। ওকে আমাদের প্রকল্পও দেখিয়েছি।’ কিন্তু ইয়ামাল যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তা ভালো লাগার কথা নয় রেগরাগুইয়ের।
 
আন্তর্জাতিক বিরতিতে স্পেন ইউরোর বাছাইপর্বে জার্জিয়া ও সাইপ্রাসের বিপক্ষে খেলবে ইয়ামাল। মাঠে নামলেই সর্বকনিষ্ঠ ফুটবলার হিসেবে স্পেনের প্রতিনিধিত্ব করার রেকর্ড গড়বেন তিনি। ভেঙে দেবেন বার্সেলোনা সতীর্থ গাভির রেকর্ড। ২০২১ সালে ১৭ বছর ৬২ দিনে স্পেনের হয়ে অভিষেক হয়েছিল গাভির। আগামী শুক্রবার জর্জিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামলে ১৬ বছর ১ মাস ২৬ দিনেই অভিষেক হয়ে যাবে ইয়ামালের।
 
 
সম্প্রতি ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে গাভিকে দিয়ে গোল করিয়ে লা লিগায় সবচেয়ে কম বয়সে ‘অ্যাসিস্ট’ (গোল করানো) করা খেলোয়াড় হয়েছেন ইয়ামাল। ১৬ বছর ৪৫ দিন বয়সী ইয়ামাল পেছনে ফেলেছেন সতীর্থ আনসু ফাতিকে। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে ১৬ বছর ৩১৮ দিন বয়সে সতীর্থকে দিয়ে গোল করিয়েছিলেন ফাতি। আর স্পেনের শীর্ষ প্রতিযোগিতায় বার্সেলোনার সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড়ও ইয়ামাল।
 
ইয়ামালের সুখবরের দিনে দলে জায়গা হয়নি ফেরান তোরেসের। চোটের কারণে নেই পেদ্রি। বার্সেলোনা ছেড়ে ব্রাইটনে যোগ দিতে যাওয়া ফাতিরও দলে জায়গা পাননি।
Advertisement
Advertisement

Notice: Undefined variable: sAddThis in /mnt/volume_sgp1_05/p1kq0rsou/public_html/details.php on line 531