ঢাকা,  বুধবার
১২ জুন ২০২৪

Advertisement
Advertisement

বিশ্বের সবচেয়ে সফল ব্যক্তিদের কিছু বিশেষ অভ্যাস

প্রকাশিত: ১৪:৩২, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বিশ্বের সবচেয়ে সফল ব্যক্তিদের কিছু বিশেষ অভ্যাস

ছবিঃ সংগৃহীত

পৃথিবীতে সবাই সফল হতে চায় এবং জীবনে শান্তিতেও থাকতে চায়। কিন্তু আমাদের প্রত্যেকের জীবনই ভিন্নরকম। তাই একই পথে হাঁটলে সবাই সফল হবে কি না, তা নিয়ে রয়েছে সংশয়। তবে সফল ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে কিছু মিল লক্ষ্য করা যায়। তাদের কাজ, জীবনযাপন, ভাবনায় মিল থাকে অনেকটাই। কিছু বিশেষ অভ্যাস আছে যা তারা মেনে চলেন এবং সেগুলো তাদের ক্ষেত্রে কার্যকরী হয়েছে। যদিও এমন অসংখ্য অভ্যাস রয়েছে যা সাফল্যের দিক নিয়ে যেতে পারে, এর মধ্য থেকে জেনে নেয়া যাক তাদের সেই অভ্যাসগুলো সম্পর্কে-
সফল ব্যক্তিরা অর্জনযোগ্য লক্ষ্যগুলো আগে নির্ধারণ করেন। তারা যা অর্জন করতে চায় তা কল্পনা করেন এবং তাকে ছোট, পরিচালনাযোগ্য উদ্দেশ্য অনুসারে বিভক্ত করেন। এই লক্ষ্যগুলো তাদের জন্য একটি রোডম্যাপের মতো যা দিকনির্দেশনা ও অনুপ্রেরণা দেয়। যেমন জিগ জিগ্লার বলেছেন,‘আপনি কতদূর পড়েছেন তা নয়, আপনি কতটা উঁচুতে বাউন্স করেছেন সেটাই গুরুত্বপূর্ণ।’
সফল মানুষের জন্য সমইয়ের মূল্যটা অনেক গুরুত্বপুর্ণ। তারা কাজগুলোকে অগ্রাধিকার দেয়, প্রয়োজনে কম গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো ছেড়ে দিয়ে, সময় নষ্ট করা কার্যকলাপ এড়িয়ে যায়। কার্যকর সময় ব্যবস্থাপনার কারণে তারা প্রতিটি দিনের সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে পারে। জন এফ. কেনেডি বলেছিলেন, ‘আমাদের সময়কে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে হবে, পালঙ্ক হিসেবে নয়।’
সফল ব্যক্তিরা জীবনব্যাপী শিক্ষা গ্রহণ করে। যা তাদের উন্নত করতে সাহায্য করে। তারা বুঝতে পারে যে জ্ঞানই শক্তি তাই তারা নতুন নতুন দক্ষতা এবং তথ্য অর্জন করতে থাকে। এই আশ্চর্যজনক অভ্যাস তাদের দ্রুত পরিবর্তনশীল বিশ্বে আরও উদ্ভাবনী এবং মানানসই হিসেবে গড়ে তোলে।
জীবনে পরিশ্রম করতে হবে এবং সকল বাধা ও চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। সবচেয়ে সফল ব্যক্তিরা ব্যর্থতা এবং বিপত্তি থেকে ফিরতে জানে। তারা বাধাকে বৃদ্ধির সুযোগ হিসেবে দেখে এবং তারা এগিয়ে যেতে থাকে।রতন টাটা বলেছিলেন, ‘লোহাকে কেউ ধ্বংস করতে পারে না, তাকে তার নিজের মরিচাই ধ্বংস করতে পারে। একইভাবে, কেউ মানুষকে ধ্বংস করতে পারে না, কিন্তু তার নিজের মানসিকতাই তাকে ধ্বংস করতে পারে।’
সাফল্যের জগতে দৃঢ় সম্পর্ক তৈরি করা এবং বজায় রাখা গুরুত্বপূর্ণ। সফল ব্যক্তিরা নেটওয়ার্কিংয়ের শক্তি বোঝেন। তাই তারা পেশাদার সম্পর্ক লালন করে এবং সহযোগিতা, পরামর্শদাতা এবং সমর্থন খোঁজার জন্য তাদের সময় বিনিয়োগ করে।
সফল ব্যক্তিরা তাদের স্বাস্থ্যের যত্ন নেন। যার কারণ হলো সুস্বাস্থ্য এবং সুস্থতা না থাকলে আপনি সফল হতে পারবেন না। সবচেয়ে সফল ব্যক্তিরা তাদের শারীরিক এবং মানসিক স্বাস্থ্যকে অগ্রাধিকার দেন। নিয়মিত ব্যায়াম, সুষম খাদ্য খাওয়া এবং পর্যাপ্ত বিশ্রাম তাদের নিত্য রুটিনের অন্যতম উপাদান।
অনেক সফল মানুষ পরোপকারী এবং সমাজকে ফিরিয়ে দিতে বিশ্বাসী। তারা তাদের বিশেষ অধিকার জেনে বিশ্বে ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে তাদের সাফল্যকে ব্যবহার করে থাকে। এর ভেতরে দাতব্য দান, পরামর্শদান বা সম্প্রদায়ের উদ্যোগে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণও জড়িত থাকতে পারে।
 
Advertisement
Advertisement

Notice: Undefined variable: sAddThis in /mnt/volume_sgp1_05/p1kq0rsou/public_html/details.php on line 531