ঢাকা,  শুক্রবার
০১ মার্চ ২০২৪

Advertisement
Advertisement

ইঁদুরের মতো গর্ত খুঁড়ে সুড়ঙ্গ থেকে শ্রমিকদের উদ্ধার করা হয়

প্রকাশিত: ২০:০৮, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

আপডেট: ১০:০০, ৩০ নভেম্বর ২০২৩

ইঁদুরের মতো গর্ত খুঁড়ে সুড়ঙ্গ থেকে শ্রমিকদের উদ্ধার করা হয়

সুরঙ্গ

ইঁদুরের মতো গর্ত খুঁড়ে ভূগর্ভস্থ কয়লা সংগ্রহের পেশায় থাকা শ্রমিকেরাই শেষ পর্যন্ত আটকে পড়া ৪১ শ্রমিককে উদ্ধার করেছে। ‘র‌্যাট হোল মাইনিং ইঁদুরের মতো গর্ত খুঁড়ে ভূগর্ভস্থ কয়লা সংগ্রহ ভারতে নিষিদ্ধ হলেও তারাই মুশকিল আসান হয়ে উদ্ধার করলেন। তাও আবার পুরোপুরি সরকারি আনুকূল্য ও সহায়তায়।

গত সোমবার থেকে হাতে হাতে শাবল, কোদাল, গাঁইতি দিয়ে সুড়ঙ্গধস সরিয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাত থেকে তাঁরাই ‘বীর। র‌্যাট হোল মাইনিং প্রধানত মেঘালয় ও পূর্ব ভারতে কয়লাখনি এলাকায় বহুল প্রচলিত একটি পদ্ধতি। ইঁদুরের মতো গর্ত করে ছোট ছোট সুড়ঙ্গ সৃষ্টির মাধ্যমে এসব এলাকায় শ্রমিকেরা কয়লা উত্তোলন করেন। এই কাজটি পরিবেশের দিক থেকে ক্ষতিকর ও ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় ভারতের পরিবেশ আদালত ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইব্যুনাল (এনজিটি) ২০১৪ সালে ওই প্রথায় কয়লা খনন নিষিদ্ধ করেন।

র‌্যাট হোল মাইনিংয়ের কারণে মাটি, পানি ও বাতাস দূষিত হয়। ছোট ছোট সুড়ঙ্গের মধ্য দিয়ে বর্ষায় প্রবাহিত হয়ে মূল খনির নিরাপত্তাব্যবস্থাও ঝুঁকিতে ফেলে দেয়।এ ছাড়া ধস নামার কারণে শ্রমিকদের জীবনও বিপন্ন হয়। সে জন্যই তা নিষিদ্ধ।

কিন্তু উত্তরাখন্ডের উত্তরকাশীর সুড়ঙ্গে আটক শ্রমিকদের উদ্ধারে সেই নিষিদ্ধ পদ্ধতিই ব্যবহার করা হলো। এ বিষয়ে জাতীয় বিপর্যয় ব্যবস্থাপনা পর্ষদের সদস্য অবসরপ্রাপ্ত লে. জেনারেল সৈয়দ আতা হাসনাইন গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, র‌্যাট হোল মাইনিং বেআইনি। কিন্তু সেই শ্রমিকদের দক্ষতা ও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগানো বেআইনি নয়। ওই দক্ষতা কয়লা তোলার ক্ষেত্রে নিষিদ্ধ; অন্যত্র নয়।

Advertisement
Advertisement

Notice: Undefined variable: sAddThis in /mnt/volume_sgp1_05/p1kq0rsou/public_html/details.php on line 531